Discy Latest Questions

  1. জলবাহিত রােগগুলিকে চারভাগে ভাগ করা যেতে পারে: i. জল থেকে সৃষ্ট রােগ: ডায়রিয়া, আমাশা, Gastroenteritis, কলেরা, টাইফয়েড, হেপাটাইটিস এ এবং ই, জিয়ার্ডিয়াসিস, পােলিও ইত্যাদি রােগ হতে পারে যদি কোন ব্যাক্তি এই সমস্ত রােগের জীবাণু সংক্রমিত জল পান করেন। ii. জল-ধৌত রােগ: চামড়ার বিষক্রিয়া, পাঁচড়া এবং চাRead more

    জলবাহিত রােগগুলিকে চারভাগে ভাগ করা যেতে পারে:

    i. জল থেকে সৃষ্ট রােগ: ডায়রিয়া, আমাশা, Gastroenteritis, কলেরা, টাইফয়েড, হেপাটাইটিস এ এবং ই, জিয়ার্ডিয়াসিস, পােলিও ইত্যাদি রােগ হতে পারে যদি কোন ব্যাক্তি এই সমস্ত রােগের জীবাণু সংক্রমিত জল পান করেন।

    ii. জল-ধৌত রােগ: চামড়ার বিষক্রিয়া, পাঁচড়া এবং চামড়ায় ছত্রাক সংক্রমণ, চোখের সংক্রামক ব্যাধি যেমন ট্রকোমা সংক্রমণের মত রােগ জলের অপর্যাপ্ত ব্যবহারের দ্বারা সৃষ্ট। যারা নিয়মিত স্নান করে না, চুল ধােয় না, নিয়মিত কাপড় কাচে না, কাপড় জামা কাচার জন্য দূষিত জল ব্যবহার করে, তারা এই ধরণের রােগে আক্রান্ত হতে পারে।

    iii. জল ভিত্তিক রােগ: গিনি কীট, যা ভারত থেকে নির্মূল হয়েছে, যখন একজন ব্যক্তি কোনও জল পান করেন যার মধ্যে এমন প্যাথােজেন রয়েছে যা জলজ পরিবেশে জীবনচক্র গড়ে তােলে, তার প্রভাবেও রােগ হতে পারে।

    iv. জল সংক্রান্ত রােগ: জমা জলে মশা জন্ম নেয়, এবং এই মশা কামড়ালে ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু জ্বর এবং ফাইলেরিয়ার মতাে রােগ হতে পারে ।

     

    See less
    • 0
  1. দূষিত জল পানের প্রভাব:  - ব্যাকটেরিয়া সংক্রমিত দূষিত জল পান করলে ডায়রিয়া, আমাশয়, পেটের সমস্যা, কলেরা, টাইফয়েড, জ্বর, জন্ডিস, পােলিও হতে পারে। সাধারণ গ্রামবাসীদের মধ্যে এই ধরণের রােগের প্রাদুর্ভাব যথেষ্ট বেশি দেখা যায়। - ভারতে আনুমানিক ৪ লক্ষ্য ছােট শিশু প্রতি বছর মারা যায় ডায়রিয়ার কারণে ।

    দূষিত জল পানের প্রভাব: 

    – ব্যাকটেরিয়া সংক্রমিত দূষিত জল পান করলে ডায়রিয়া, আমাশয়, পেটের সমস্যা, কলেরা, টাইফয়েড, জ্বর, জন্ডিস, পােলিও হতে পারে। সাধারণ গ্রামবাসীদের মধ্যে এই ধরণের রােগের প্রাদুর্ভাব যথেষ্ট বেশি দেখা যায়।

    – ভারতে আনুমানিক ৪ লক্ষ্য ছােট শিশু প্রতি বছর মারা যায় ডায়রিয়ার কারণে ।

    See less
    • 0
  1. সেই তুমি (Sei Tumi) গায়কঃ আইয়ুব বাচ্চু সেই তুমি কেন এত অচেনা হলে সেই আমি কেন তোমাকে দুঃখ দিলেম কেমন করে এত অচেনা হলে তুমি কিভাবে এত বদলে গেছি এই আমি বুকেরই সব কষ্ট দুহাতে সরিয়ে চল বদলে যাই তুমি কেন বোঝনা তোমাকে ছাড়া আমি অসহায় আমার সবটুকু ভালোবাসা তোমায় ঘিরে আমার অপরাধ ছিল যতটুকু তোমার কাছে তুমি.. ক্Read more

    সেই তুমি (Sei Tumi)

    গায়কঃ আইয়ুব বাচ্চু

    সেই তুমি কেন এত অচেনা হলে
    সেই আমি কেন তোমাকে দুঃখ দিলেম
    কেমন করে এত অচেনা হলে তুমি
    কিভাবে এত বদলে গেছি এই আমি
    বুকেরই সব কষ্ট দুহাতে সরিয়ে
    চল বদলে যাই
    তুমি কেন বোঝনা
    তোমাকে ছাড়া আমি অসহায়
    আমার সবটুকু ভালোবাসা তোমায় ঘিরে
    আমার অপরাধ ছিল যতটুকু তোমার কাছে
    তুমি.. ক্ষমা করে দিও আমায়..

    কত রাত আমি কেদেছি
    বুকের গভীরে কষ্ট নিয়ে
    শূন্যতায় ডুবে গেছি আমি
    আমাকে তুমি ফিরিয়ে নাও
    তুমি কেন বোঝনা
    তোমাকে ছাড়া আমি অসহায়
    আমার সবটুকু ভালোবাসা তোমায় ঘিরে
    আমার অপরাধ ছিল যতটুকু তোমার কাছে
    তুমি ক্ষমা করে দিও আমায়

    যতবার ভেবেছি ভুলে যাবো
    তারও বেশি মনে পড়ে যায়
    ফেলে আশা সেই সব দিনগুলো
    ভুলে যেতে আমি পারি না
    তুমি কেন বোঝনা
    তোমাকে ছাড়া আমি অসহায়
    আমার সবটুকু ভালোবাসা তোমায় ঘিরে
    আমার অপরাধ ছিল যতটুকু তোমার কাছে
    তুমি ক্ষমা করে দিও আমায়

    See less
    • 1
  1. গান - আমায় প্রশ্ন করে নীল ধ্রুবতারা শিল্পী - হেমন্ত মুখোপাধ্যায় আমায় প্রশ্ন করে নীল ধ্রুবতারা আর কত কাল আমি রব দিশাহারা, রব দিশাহারা। জবাব কিছুই তার দিতে পারি নাই শুধু পথ খুঁজে কেটে গেল এ জীবন সারা, এ জীবন সারা। আমায় প্রশ্ন করে নীল ধ্রুবতারা আর কত কাল আমি রব দিশাহারা, রব দিশাহারা। (I am being askedRead more

    গান – আমায় প্রশ্ন করে নীল ধ্রুবতারা
    শিল্পী – হেমন্ত মুখোপাধ্যায়

    আমায় প্রশ্ন করে নীল ধ্রুবতারা
    আর কত কাল আমি রব দিশাহারা,
    রব দিশাহারা।
    জবাব কিছুই তার দিতে পারি নাই শুধু
    পথ খুঁজে কেটে গেল এ জীবন সারা,
    এ জীবন সারা।
    আমায় প্রশ্ন করে নীল ধ্রুবতারা
    আর কত কাল আমি রব দিশাহারা,
    রব দিশাহারা।

    (I am being asked by the blue pole star
    How long I will be aimless?
    I am constantly failed to provide any answer
    Just spent my whole life in search of a direction.)

    কারা যেন ভালবেসে আলো জ্বেলেছিলো
    সূর্যের আলো তাই নিভে গিয়েছিলো
    নিজের ছায়ার পিছে ঘুরে ঘুরে মরি মিছে
    একদিন চেয়ে দেখি আমি তুমি হারা,
    আমি তুমিহারা।
    আমায় প্রশ্ন করে নীল ধ্রুবতারা
    আর কত কাল আমি রব দিশাহারা,
    রব দিশাহারা।

    (Somebody loved and lighted my way
    So the light of the Sun moved away
    I roam senselessly behind my own shadow
    One day I realize you are no more by my side.)

    আমি পথ খুঁজি নাকো, পথো মোরে খোঁজে
    মন যা বোঝে না বুঝে, না বুঝে তা বোঝে
    আমার চতুরপাশে সব কিছু যায় আসে
    আমি শুধু তুষারিত গতিহীন ধারা,
    গতিহীন ধারা।
    আমায় প্রশ্ন করে নীল ধ্রুবতারা
    আর কত কাল আমি রবো দিশাহারা,
    রবো দিশাহারা।

    (I don’t search for any path, path look for me.
    My heart fails to perceive the requisite
    Everything comes and goes around myself.
    I am just a motionless icy glacier.)

    Amay Proshno Kore Nil Dhrubo Tara lyrics

     

     

     

     

     

     

     

     

    Amay Proshno Kore Nil Dhrubo Tara lyrics in English

    Amay prosno kore Neel Drubotara
    Hemanta Mukhopadyay

    Amay prosno kore Neel Drubotara
    Aar kotokal ami robo dishahara
    Robo Disahara
    Jobab kichui tar dite pari nai shudhu
    Poth khuje kete gelo E jibon shara
    E Jibon Shara
    Amay prosno kore Neel Drubotara
    Aar kotokal ami robo dishahara
    Robo Disahara

    Kara jeno valobeshe Alo jelechilo
    Surjer alo tai nibhe giyechilo
    Nijer chayar piche ghure ghure mori miche
    Ekdin cheye deki ami tumi hara,
    Ami tumi hara
    Amay prosno kore Neel Drubotara
    Aar kotokal ami robo dishahara
    Robo Disahara

    Ami poth khujinako, potho more khuje
    Mon ja buje na bujhe, na buje ta buje
    Amar charurpashe shob kichu jay aashe
    Ami shudhu tusharito gotihin dhara
    Gotihin dhara
    Amay prosno kore Neel Drubotara
    Aar kotokal ami robo dishahara
    Robo Disahara

    See less
    • 0
  1. শিশুশ্রম সূচনাঃ মানব জীবনের প্রথম পর্যায় হলো শৈশব। আর শৈশবই হল মানব জীবনের অন্যতম অধ্যায়। প্রত্যক্ষ দৃষ্টিতে একটি শিশুকে নির্ভরশীল বলে মনে হলেও কিন্তু একটি দেশের ভবিষ্যৎ গড়ে ওঠে ওই দেশের শিশুদের উপর। তাই ইংরেজিতে একটি প্রবাদ বাক্য আছে "today's child is tomorrow's citizen" অর্থাৎ আজকের শিশু কালকেরRead more

    শিশুশ্রম

    সূচনাঃ মানব জীবনের প্রথম পর্যায় হলো শৈশব। আর শৈশবই হল মানব জীবনের অন্যতম অধ্যায়। প্রত্যক্ষ দৃষ্টিতে একটি শিশুকে নির্ভরশীল বলে মনে হলেও কিন্তু একটি দেশের ভবিষ্যৎ গড়ে ওঠে ওই দেশের শিশুদের উপর। তাই ইংরেজিতে একটি প্রবাদ বাক্য আছে “today’s child is tomorrow’s citizen” অর্থাৎ আজকের শিশু কালকের নাগরিক। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত প্রত্যেকটি শিশু প্রাথমিক সুযোগ সুবিধা, শিক্ষা ইত্যাদি পায় না। ওরা শিকার হয় বিভিন্ন অপব্যবহারের। আর তার মধ্যে অন্যতম একটি অপব্যবহার হল শিশুশ্রম।

    শিশুশ্রমের সংজ্ঞাঃ
    যে কোনো কাজ যা একটি শিশুর মর্যাদা, সম্ভাবনা এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভাবে তার শৈশব থেকে কেঁড়ে নেয় তাকে শিশুশ্রম বলা হয়। বা যে কোন কাজ যা একটি শিশুর শারীরিক ও মানসিক বিকাশে ব্যাহত ঘটায় তাকে শিশুশ্রম বলা হয়।
    আমাদের দেশে সরকারি নির্দেশমতে ১৪ বছর ‌বয়সের অনূর্ধ্ব ছেলেমেয়েরা শিশু হিসেবে গণ্য। তাই ১৪ বছরের নিচের কোন শিশুকে দিয়ে যে কোনো কোথাও কাজ বা শ্রম নেওয়া শিশুশ্রম হিসাবে গণ্য হয়।

    শিশুশ্রমের কারণঃ
    শিশুদের কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করার অন্যতম কারণ গুলির মধ্যে অর্থনৈতিক, পারিবারিক ও ব্যক্তিগত কারণ পরিলক্ষিত হয়। আমাদের দেশের একটি অন্যতম অংশ দরিদ্র শ্রেণীর। তাই পরিবারের অসচ্ছলতা দরিদ্রতা এবং উপার্জনকারী সদস্যের অকাল মৃত্যু একটি শিশুকে অল্প বয়সে কাজে নিযুক্ত হতে বাধ্য করে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে শিশুর পরিবারের শিক্ষা সম্পর্কে অসচেতনতা, অর্থের মোহ, অভিভাবকদের নৃশংস আচরণ একটি শিশুকে শ্রমজীবী হতে বাধ্য করে। তাছাড়াও সামাজিক বিপর্যয়, সাম্প্রদায়িকতা এবং অন্যান্য নানা কারণে শিশুরা অল্প বয়সেই শ্রমে লিপ্ত হয়।

    রচনা : শিশু শ্রম | Child Labour Paragraph in Bengali

    ভারতবর্ষে শিশুশ্রমঃ
    বিশ্বের বিভিন্ন উন্নত এবং উন্নয়নশীল দেশসমূহের বিভিন্ন উৎপাদন ক্ষেত্রে থাকা শ্রমিক গোষ্ঠীর মধ্যে এক উল্লেখযোগ্য অংশ হলো “শিশু শ্রমিক” । এবং দুর্ভাগ্যক্রমে বিশ্বের মধ্যে ভারতেশিশু শ্রমিকের সংখ্যা সব থেকে বেশি। তবে ভারতবর্ষের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি দায়ী দারিদ্রতা, সামাজিক সুরক্ষাঁর অভাব ও দুর্বল অর্থনীতি। যার ফলে আজ লক্ষ লক্ষ শিশু‌ বিভিন্ন উৎপাদন ক্ষেত্র থেকে শুরু করে রেস্তোরাঁ, পারিবারিক কাজ, মোটর গ্যারেজে শ্রম এর জন্য বাধ্য।

    শিশুশ্রমের নেতিবাচক প্রভাবঃ
    শিশুশ্রম একটি অমানবিক কাজ। একটি শিশুর প্রকৃত ভাবে বেড়ে ওঠার সময় তাকে কাজের জন্য ঠেলে দেওয়া তার শৈশব কে কেড়ে নেয়া মোটেই কাম্য নয়। শিশুশ্রম এর ফলে একটি শিশুর দৈহিক মানসিক দুটো ক্ষেত্রেই নেতিবাচক প্রভাব দেখা দেয়। একদিকে অনুপযুক্ত পরিবেশে কাজ করার দরুন তাকে রোগাক্রান্ত হতে হয় অন্যদিকে তারা ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া বিশ্রাম না করায় অপুষ্টি ও রক্তশূন্যতায় ভোগে। এবং কাজের চাপে শিশুর মন ভারাক্রান্ত হয় ওরা জীবনের প্রথম ধাপেই ভেঙে উঠে। যার ফলে একটি শিশুর ভবিষ্যৎ অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়।

    শিশুশ্রম নিবারণে সরকারি আইন সামাজিক দায়বদ্ধতাঃ
    পৃথিবী ব্যাপী বিভিন্ন দেশে শিশুশ্রমিকদের মুক্তির লক্ষ্যে বিভিন্ন আইন ব্যবস্থা চালু রয়েছে। ভারত সরকার ও সমাজের অবহেলিত এবং শোষিত শিশু শ্রমিকদের কথা লক্ষ্য করে স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে বিভিন্ন আইন প্রণয়ন করেছে। ভারতে আইন অনুযাযশিত১৪ বছরের নিচে থাকা কোন শিশুকে কারখানায়, বা ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োগ অবৈধ ও আইনত দণ্ডনীয়। তাছাড়াও শিশুদের উন্নয়নের লক্ষ্যে বিভিন্ন নিয়ম নীতি ও পরিকল্পনা সরকার হাতে নিয়েছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় সরকারের প্রচেষ্টা সত্ত্বেও আজ সমাজের শিশুশ্রম সেই হিসাবে রাস পায়নি।
    তাই শিশুশ্রম সমূলে নিবারণ করতে হলে দরকার শিক্ষার প্রসার, সচেতনতা এবং দরিদ্র শ্রেণীর সামাজিক ও আর্থিক সুরক্ষা। এতে প্রয়োজন সরকারি এবং স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক দৃষ্টিভঙ্গি।

    উপসংহারঃ
    শিশুশ্রম একটি সামাজিক সমস্যা এবং কুপ্রথা। তাই এর দূরীকরণ সরকার এবং সমাজকে মূল দায়িত্ব হিসাবে গ্রহণ করা উচিত।

    See less
    • 3
  1. This answer was edited.

    ইন্টারনেটে বাংলা ভাষার স্থান ইন্টারনেট নিঃসন্দেহে বর্তমান যুগের নিত্যদিনের সঙ্গী। আজ আমরা অফিস আদালত থেকে শুরু করে ব্যক্তিগত ভাবে বিভিন্ন কাজের জন্য ইন্টারনেটের উপর নির্ভরশীল। তাই আপনি হয়তো অনেকগুলি বাংলা ওয়েবসাইট দেখেছেন, হয়তো পড়েছেন অনেক বাংলা ব্লগ কিংবা খবরের সাইট। কিন্তু কি জানেন, বাংলা ভাষাRead more

    ইন্টারনেটে বাংলা ভাষার স্থান

    ইন্টারনেট নিঃসন্দেহে বর্তমান যুগের নিত্যদিনের সঙ্গী। আজ আমরা অফিস আদালত থেকে শুরু করে ব্যক্তিগত ভাবে বিভিন্ন কাজের জন্য ইন্টারনেটের উপর নির্ভরশীল। তাই আপনি হয়তো অনেকগুলি বাংলা ওয়েবসাইট দেখেছেন, হয়তো পড়েছেন অনেক বাংলা ব্লগ কিংবা খবরের সাইট। কিন্তু কি জানেন, বাংলা ভাষায় বিষয়বস্তু থাকা অথবা ওয়েবসাইটে বাংলার ব্যবহার খুবই নগণ্য। “Web technology Surveys” মতে শুধুমাত্র 0.018 শতাংশ। অঙ্ক টা অবাক করার মতো হলেও সেটাই সত্যি। নিচের এই chart এ তা দেখতে পারবেন।

    Content in Bengali over internet

    বিশ্বে ভাষার দিক দিয়ে বাংলা ভাষার স্থান পঞ্চম হলেও ইন্টারনেটে আমাদের অস্তিত্ব একেবারেই নগণ্য। যেখানে ২৫ কোটিরও বেশি মানুষ বাংলায় কথা বলে সেখানে একটি নিত্য প্রয়োজনীয় মাধ্যম ইন্টারনেটে আমাদের অস্তিত্ব অনেক পিছিয়ে। তাই আমাদের অনেকে বিভিন্ন তথ্য জানার ইচ্ছা থাকলেও ইংরেজি ভাষা না জানার কারণে তা আর সম্ভব হয়ে উঠছে না।

    আধুনিকতার এই যুগ হচ্ছে বিশ্বায়নের যুগ, ডিজিটাল যুগ। আমরা দেখতে পাচ্ছি তথ্যপ্রযুক্তির উন্নতির ফলে আমাদের বই-খাতার জায়গা নিয়ে নিচ্ছে মোবাইল, ট্যাবলেট ও ল্যাপটপ থেকে শুরু করে বিভিন্ন ডিভাইস। তাই আমাদের দায়িত্ব আমাদের প্রিয় ভাষার ডিজিটাল উপস্থাপন ও সমৃদ্ধিকরণ। ইন্টারনেটে ওয়েবসাইটগুলোতে বাংলা ভাষার প্রয়োগের মাধ্যমে তাঁর অস্তিত্বের বিস্তার। সেই ক্ষেত্রে দরকার সরকারি-বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সব ধরনের উদ্যোগ। তাহলেই আমরা আমাদের প্রিয় ভাষাকে বিশ্ব দরবারে আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব।

    See less
    • 0
  1. This answer was edited.

    Vibes - ভাইবস  অর্থ - আবহ বা atmosphere ইংরাজিতে অর্থ - The mood or character of a place, situation, or piece of music. অর্থাৎ- যে কোন ব্যাক্তি, স্থান, জায়গা বা পরিবেশের সাময়িক আবহ বা মেজাজ কে Vibes (ভাইবস) বলা হয়। ইহা সামাজিক মাধ্যমে (ফেছবুক,ইন্সতাগ্রাম) এইগুলিতে বিশেষ করে যুব সমাজে্র মধ্যে খুবই পরRead more

    Vibes – ভাইবস 

    • অর্থ – আবহ বা atmosphere
    • ইংরাজিতে অর্থ – The mood or character of a place, situation, or piece of music.
    • অর্থাৎ- যে কোন ব্যাক্তি, স্থান, জায়গা বা পরিবেশের সাময়িক আবহ বা মেজাজ কে Vibes (ভাইবস) বলা হয়।
    • ইহা সামাজিক মাধ্যমে (ফেছবুক,ইন্সতাগ্রাম) এইগুলিতে বিশেষ করে যুব সমাজে্র মধ্যে খুবই পরিচিত একটি শব্দ।

     

    উদাহরনঃ

    • I am getting extremely good vibes from this dish.
    • I don’t like Mr Malcolm, he gives me bad vibes.
    • Our garden always give me good vibes.
    • What a soothing vibes this piece of music provide!

     

    See less
    • 1